Want create site? Find Free WordPress Themes and plugins.

ঘন, লম্বা ও রেশমি চুল কার না পছন্দ। বিশেষ করে চুলের যত্নের পেছনে অনেক সময় ব্যয় করে থাকেন নারীরা। তবে এ বিষয়ে পিছিয়ে নেই পুরুষরাও। চুলের যত্নে কত কিছুই না করে থাকি আমরা। নারিকেলের তেল, আমলকী, লেবু, টকদই, নিমপাতাসহ বিভিন্ন ধরনের উপকরণ ব্যবহার করে থাকি।

রুক্ষ চুলের সমস্যায় ভুগছেন? গোছা গোছা চুল উঠছে? সেই সঙ্গে অকালপক্বতা? এখনকার ব্যস্ত জীবনে চুলের কোনো না কোনো সমস্যা রয়েছে প্রায় প্রত্যেকেরই। একদিকে দূষণের আধিক্য, অন্যদিকে জেল, স্ট্রেটনার ও কেমিক্যালের কারিগরিতে চুলের হাল দফারফা।

তবে কখনও কি শুনেছেন রসুন ব্যবহারে পেতে পারেন নজরকাড়া চুল। শুনে হয়তো বিশ্বাস হচ্ছে না। তবে ঘটনা কিন্তু সত্যি। চুলে রসুন ব্যবহার থেকে আপনাকে কিছু বিষয় অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে।

জানেন তো, ঘন ও লম্বা চুল করতে রসুনের জুড়ি মেলা ভার। অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল গুণসমৃদ্ধ রসুন চুলের গোড়া মজবুত করে। রসুনের মধ্যে রয়েছে ভিটামিন ‘সি’, যা চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখে, রুক্ষতা দূর করে। খুশকির সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

আসুন ছবিতে দেখে নিই কীভাবে রসুন ব্যবহার করলে পাবেন নজরকাড়া চুল-

প্রথমে রসুনের পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার তার সঙ্গে মধু মিশিয়ে চুলের গোড়া থেকে লাগান। ৩০ মিনিট ওই মিশ্রণ লাগিয়ে রেখে ঠাণ্ডা জলে ভালো করে চুল ধুয়ে নিন।

রসুন ভালো করে বেটে নিয়ে তার সঙ্গে উষ্ণ গরম নারিকেল তেল মিশিয়ে হেয়ারপ্যাক বানিয়ে ফেলুন। ভালো করে চুল ও স্ক্যাল্পে ওই মিশ্রণ লাগিয়ে রাখুন। আধ ঘণ্টা লাগিয়ে রেখে চুল ধুয়ে ফেলুন।
চুল ভালো রাখতে বাড়িতেই বানিয়ে নিন রসুনের তেল। ওলিভ ও নারিকেলের তেলের সঙ্গে রসুন মিশিয়ে সারা রাত রেখে দিন। পর দিন চুলে ভালো করে ওই মিশ্রণ লাগিয়ে ঘণ্টাখানেক রেখে চুল ধুয়ে নিন।
রসুন ও আদা একসঙ্গে বেটে নিন। এবার ওই মিশ্রণ যে কোনো ভালো ওলিভ তেলে মিশিয়ে গরম করুন। মিশ্রণ বাদামি হয়ে এলে সেটি চুলে ১৫ মিনিট ধরে ম্যাসাজ করুন। এর পর আধাঘণ্টা রেখে ভালো করে চুল ধুয়ে নিন।
রসুনের তেল

 

Did you find apk for android? You can find new Free Android Games and apps.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here