#

বরিশালের বাকেরগঞ্জে প্রবাসির স্ত্রীকে ধর্ষনে ব্যার্থ হয়ে যৌনাঙ্গে নির্যাতনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় মনির শরীফ নামের আসামিকে পৃথক ধারায় কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।

এর মধ্যে ধর্ষন চেষ্টার দায়ে ৫ বছরের কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাস এবং শ্লীলতাহানীর দায়ে ৩ বছরের করাদন্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

বুধবার (১৬জানুয়ারি) এ দন্ড দেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ আবু শামিম আজাদ। দন্ডিত মনির আন্দার মানিক এলাকার মৃত শের আলী শরীফের ছেলে। রায় ঘোষনার সময় সে পলাতক ছিলো।

আদালতের বেঞ্চসহকারি মো. আজিবর রহমান জানান, কাজলাকাঠী গ্রামের বাসিন্দা প্রবাসির ছেলে বরিশালে থেকে একটি মাদ্রাসায় পড়াশুনা করায় বাড়িতে তার স্ত্রী একাই বসবাস করে। গৃহবধু বাড়িতে একা থাকার সুবাদে নারী লোভী মনির তাকে বিভিন্ন সময়ে কু-প্রস্তাব দেয়। ২০১৫ সালের ৬ মে গৃহবধু বাসায় একা থাকার সুযোগ নিয়ে রাত সাড়ে ১০ টায় কৌশলে ঘরে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষনের চেষ্টা করে মনির। এতে বাধা দেয়ায় ধর্ষনে ব্যার্থ হয়ে ব্লেড দিয়ে যৌনাঙ্গে আঘাত করে জখম সে। এসময় ডাক চিৎকারে লোকজন ছুটে আসলে মনির পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ওই বছরের ২৩ জুন গৃহবধু বাদী হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন।

বিচারক মামলাটি জুডিসিয়াল তদন্তের জন্য ওই সময়ের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তরুন বাছাড়কে নির্দেশ দেন। একই বছরের ৫ আগষ্ট আদালতে প্রতিবেদন জমা দেন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তরুন বাছাড়। মামলায় ৪ জনের সাক্ষ্য নিয়ে বিচারক ওই আদেশ দেন।

Facebook Comments

উত্তর দিন

Please enter your comment!
এখানে আপনার নাম লিখুন