Want create site? Find Free WordPress Themes and plugins.

ঢাকা-বরিশাল রূটে লঞ্চে কেবিনের ফাঁকে ফাঁকে লেপ-তোষক বিছিয়ে রাখা হয়। এসব বিছানা ২শ থেকে ৩শ টাকা বিক্রি করা হয়ে থাকে। কেবিনের দরজার সমেনে এসব বিছানার যাত্রীরা সারা রাত ঘুমিয়ে থাকেন। এতে চরম বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন কেবিনের যাত্রীরা।

কেবিনে থাকা নারী যাত্রীরা রাত-বিরাতে বের হয়ে বাথরুম-টয়লেটে যেতে চরম বিরম্বনায় পড়েন। আবার কেউবা হন অযাচিত ইভটিজিং এর শিকার। বেশি ভাড়া দিয়ে প্রথম শ্রেণিতে যাতায়াত করেও কেন এই বিরম্বনা ?

গতকাল ঢাকাগামী প্রায় প্রতিটি লঞ্চেই এই চিত্র দেখা গেছে। এতে কেবিনের যাত্রীরা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তবে এটা নিত্যদিনের দৃশ্য।

এদিকে এই বিছানা ব্যবসা করছে লঞ্চে স্টাফরাই। আগে অনেকটা গোপনে করলেও এখন একদম প্রকাশ্যেই।কারো কোন আদেশ নিষেধ যেন তারা শুনছেইনা। এসব দেখে অনেকেই বলছেন, নিশ্চই মালিক পক্ষ বিষয়টি জানেন। তারা অতি মুনাফার লোভে হয়তো এই অবৈধ ব্যবসা করাচ্ছেন। অথবা স্টাফদের বেতন কম দিয়ে তাদেরকে দিয়ে এসব কাজ করাচ্ছেন।

তবে যে কারণেই হোক, দ্রুত এই সমস্যার সমাধান চেয়েছেন ভুক্তভোগী যাত্রীরা।এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএ, লঞ্চ মালিক কতৃপক্ষ, জেলা প্রশাসন সহ সংস্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

Did you find apk for android? You can find new Free Android Games and apps.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here