#

বেকারদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে গাজীপুর জেলা প্রশাসন গাজীপুরে  ৭ ও ৮ জানুয়ারি দুই দিনব্যাপী চাকরি মেলার আয়োজন করে। এই মেলায় চাকরি হয়েছে ২৫০ জনের। মেলার শেষ দিনে তাদের হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেওয়া হয়।

মেলায় অংশগ্রহণ করা শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বেক্সিমকো টেক্সটাইলস, মোগড়খাল যুব ও সমাজকল্যাণ সংসদ এবং নোমান গ্রুপ যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান লাভ করে।

 

জেলা প্রশাসক অফিস সূত্রে জানা যায়, দুই দিনব্যাপী চাকরি মেলায়  ২৪ হাজার চাকরি প্রার্থী সিভি জমা দেয়। এ সব সিভি থেকে মেলায় অংশগ্রহণকারী ৪০টি প্রতিষ্ঠান তাদের বিভিন্ন ক্যাটাগরির শূন্য পদের বিপরীতে মোট ১ হাজার ৭১৮ জনকে প্রাথমিকভাবে বাছাই করেছে। ওই সব প্রতিষ্ঠানগুলোর শূন্য পদের সংখ্যা ছিল ১ হাজার ১২৩টি। মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে তাৎক্ষণিকভাবে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ক্যাটাগরির শূন্য পদের বিপরীতে ২৫০ জন চাকরিপ্রার্থীর হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেওয়া হয়।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান বলেন, চাকরিপ্রার্থী ও চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সংযোগ সৃষ্টি করতে এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়। এ চাকরি মেলায় বেক্সিমকো টেক্সটাইল লি., স্কয়ার টেক্সটাইল মিলস লি., স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লি., নেসলে বাংলাদেশ লি., ওয়ালটন গ্রুপ, প্রাণ আরএফএল গ্রুপ, বাটা গ্রুপ, ইপিলিয়ন গ্রুপসহ ছোট-বড় প্রায় ৪০টির মতো শিল্পপ্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। এ ছাড়া সরকারি বিভিন্ন প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, জাতীয় মহিলা সংস্থা, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়সহ জেলা প্রশাসনের দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক তথ্য সম্বলিত স্টল বসানো হয়। সেখানে ওইসব শিল্প প্রতিষ্ঠানের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা চাকরি প্রার্থীদের সঙ্গে দক্ষতা, অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন।

এছাড়া ক্যারিয়ার বাছাই, জীবন বৃত্তান্ত প্রস্তুতকরণ, উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ করা ও দক্ষতা বৃদ্ধির বিষয়ে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো বাছাই করা সিভি অনুযায়ী যোগ্য প্রার্থীদের চাকরি দেবে।

 

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ হাসান রাসেল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম, ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মাসুদা সিকদার, টঙ্গী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. রফিকুল ইসলাম, গাজীপুর সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. এবিএম ইসমাইল হোসেন খান প্রমুখ।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
এখানে আপনার নাম লিখুন